পৃথিবীটা সাময়িক, প্রধানমন্ত্রীকে রিজভী

এই পৃথিবীটা সাময়িক- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। বলেছেন, পৃথিবীতে সব কাজের কর্মফল ভোগ করতে হয় অনন্তকাল।

রবিবার নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বিএনপির সিনিয়স যু্গ্ম মহাসচিব। এক বছর ধরে কারাগারে থাকা দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে রিজভী বলেন, ‘পৃথিবীটা ক্ষণিকের, কিন্তু কর্মফল অনন্তকালের। এখনও সময় আছে, এবার দেশনেত্রীকে মুক্তি দিন।’

‘প্রধানমন্ত্রী আপনি অনুগ্রহ করে ফেরাউন-নমরুদ-হিটলার অথবা কল্পরাজ্যের হিরকের রাজাকে টেক্কা দেওয়ার প্রতিযোগিতা করবেন না। দুই কোটি টাকার মিথ্যা মামলায় তাকে একবছর কারারুদ্ধ করে রাখা অন্যায়, অবিচার ও জুলুম।’

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে কারাগারে যান খালেদা জিয়া। বিএনপি তাকে এক সপ্তাহের মধ্যে মুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছিল। কিন্তু এক বছরেও কিছু করতে পারেনি। উল্টো আপিলে দণ্ড বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। একই সময়ে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলাতেও সাত বছরের কারাদণ্ড হয়েছে তার। আর এই দুই দণ্ডের কারণে তিনি একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি।

দলীয় প্রধানের মুক্তি দাবি করে রিজভী বলেন, ‘মিথ্যা দণ্ড দিয়ে তাকে (খালেদা জিয়া) নির্বাচন থেকে দূরে রাখার সাধ পূর্ণ করলেন, এবার মুক্তি দিন। প্রধানমন্ত্রী আপনি দেয়ালের ভাষা পড়ুন, চারিদিকে মানুষ চোখে-মুখে কী বলছে, বোঝার চেষ্টা করুন।’

বিএনপির অভিযোগ, খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়ার পেছনে সরকারের হাত রয়েছে। তবে সরকার বলে আসছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় মামলা হয়েছে। সেখানে তাদের হাত থাকার কারণ নেই।

রিজভী বলেন, তত্ত্বাবধায়কের আমলে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধেও ১৫টি দুর্নীতির মামলা ছিল। সেগুলো আদালতের মাধ্যমে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। আর খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের মামলাগুলোকে চলমান রাখা হয়েছে।

কারাগারে আটক খালেদা জিয়ার চোখে প্রচণ্ড ব্যথা, পা ফুলে গেছে, হাঁটতে পারছেন না বলেও দাবি করেন রিজভী। বলেন, এমন পরিস্থিতিতেও তাকে ঘন ঘন আদালতে হাজির করা হচ্ছে।

ঢাকাটাইমস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*