ব্যাংক ও আর্থিক খাত বিপদের মুখোমুখি : অর্থমন্ত্রী

ব্যাংকিং ও আর্থিক খাত বিপদের মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, ব্যাংকিং ও আর্থিক খাত বিপদের মুখোমুখি। এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত। আমরা যেভাবে ব্যাংকিং খাত চালাচ্ছি, এভাবে চালালে চলবে না। এভাবে চললে কোনো দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে অগ্রণী ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলন-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, স্বল্পমেয়াদি আমানত গ্রহণ করে দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেওয়া যেতে পারে না। এর মাধ্যমে যারা উন্নয়নের চিন্ত করে তারা বোকার রাজ্যে রয়েছে। এজন্য বন্ড মার্কেটে জোর দিতে হবে।‘প্রাণ’কে দিয়ে আমরা বন্ড মার্কেটের কাজ শুরু করবো।

মুস্তফা কামাল, দেশের উন্নয়নের ট্যাক্সের পরিধি আরো বাড়াতে হবে। আমাদের দেশে যারা কর প্রদান করে তারাই বারবার প্রদান করে আসছেন। নতুন করে ট্যাক্সের আওতায় আসার উপযোগী অনেকে এই তালিকার অন্তর্ভূক্ত হচ্ছেন না। তাই আগামীতে কর না বাড়িয়ে আওতা বাড়ব।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি লজিং থেকে পড়ালেখা করেছি। অনেক সময় কৃষিকাজ করেছি, দারিদ্র্যের কারণে অনেক পেশা বেছে নিয়েছি। গরিব হওয়ার কষ্ট আমি বুঝি। ২০৩০ সালে দেশে গরিব থাকবে না। তিনি বলেন, দেশ থেকে দারিদ্র তাড়াতে হবে। সবাই প্রধানমন্ত্রীকে সহায়তা করলে আমরা ফেল করবো না।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে ব্যাংকটির সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস-উল ইসলাম ব্যাংকের আর্থিক অবস্থা তুলে ধরে বলেন, ২০১৮ সাল শেষে অগ্রণী ব্যাংকের আমানত দাঁড়িয়েছে ৬২ হাজার ৩৯২ কোটি টাকা। এ সময় ঋণ ও অগ্রীম এর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৯ হাজার ৫৭৫ কোটি টাকা। শ্রেণিকৃত ঋণ (খেলাপি ঋণ) দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৭৫১ কোটি টাকা; যা মোট ঋণের ১৬ দশমিক ২১ শতাংশ। আলোচিত সময়ে এর শাখার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৫২টিতে।

অনুষ্ঠানে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ঋণ পরিশোধ করাসহ দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মোট ১৬ জনকে গুণী গ্রাহক সম্মাননা প্রদান করে অগ্রণী ব্যাংক। অগ্রণী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ড. জায়েদ বখতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, ব্যাংকের পরিচালক কাশেম হুমায়ূন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*