আমরা এখন যে কাজটি করছি তা হচ্ছে দল পুনর্গঠন

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা এখন যে কাজটি করছি তা হচ্ছে দল পুনর্গঠন। আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশে দলকে পুনর্গঠনের কাজ চলছে। দল পুনর্গঠনের মধ্য দিয়ে এ দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ফ্যাসিবাদী ও স্বৈরাচারী সরকারকে উৎখাত করা হবে।

বিএনপির সাবেক মহাসচিব অ্যাডভোকেট খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার পাঁচুরিয়াতে তার কবর জিয়ারত শেষে মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন।

যুগ্ম-মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, প্রয়াত মহাসচিবের দুই ছেলে খোন্দকার আকবর হোসেন বাবলু ও খোন্দকার আকতার হামিদ ডাবলু প্রমুখ এ সময় সেখানে ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া বিনা অপরাধে রাজনৈতিক কারণে কারাভোগ করছেন। গণতন্ত্রের মানসকন্যা খালেদা জিয়াসহসহ রাজবন্দিদের মুক্তি এবং সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তার জন্য বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে যাচ্ছে।

খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী বাদ জোহর তার গ্রামের বাড়ি পাঁচুরিয়ায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে যোগ দেন ফখরুল। কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

২০১১ সালের ১৬ মার্চ সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে খোন্দকার দেলোয়ার শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বীরমুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন পাঁচুরিয়ায় ১৯৩৩ সালের ১ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। ভাষা আন্দোলনে ভূমিকা পালনের জন্য একুশে পদক পান এ মুক্তিযোদ্ধা।

শোভনের রাজনৈতিক ভবিষ্যত নিয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে সহসভাপতি (ভিপি) পদে পরাজিত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেছেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার উদারতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তার পরিবারের রাজনৈতিক পটভূমির কথা তুলে ধরেন। ছাত্রলীগ সভাপতিকে তার পাশে বসান প্রধানমন্ত্রী।

শনিবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ডাকসুর নির্বাচিত প্রতিনিধিরা। এ সময় সেখানে ছাত্রলীগের সভাপতি শোভনও ছিলেন।

শোভন পরাজিত হয়েও ভিপি নুরুল হক নুরকে বুকে টেনে নেয়ায় তার প্রশংসা করে শেখ হাসিনা বলেন, শোভন রাজনৈতিক উদারতার পরিচয় দিয়েছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শোভনের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল এমনও ইঙ্গিতও দেন।

তিনি বলেন, ভোটে হারার পর শোভন আমার কাছে এসেছে। আমি শোভনকে বলেছি- ভোটে হেরেছ, এবার যাও তাকে (নূর) অভিনন্দন জানাও। সে তাই করেছে। ও যেভাবে নেতৃত্ব দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছে, তাতে ওর রাজনৈতিক নেতৃত্বই ফুটে উঠেছে। আমি এ জন্য শোভনকে ধন্যবাদ জানাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, শোভন আওয়ামী পরিবারের সন্তান। ওর দাদা ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক ও কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং এমপি ছিলেন। ওর বাবা উপজেলা চেয়ারম্যান, ছিলেন কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি। সে তার রাজনৈতিক উদারতা দেখিয়েছে।

প্রসঙ্গত প্রায় ২৮ বছর পর গত ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে সহসভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নূর। সাধারণ সম্পাদকসহ ২৩ পদে জয়লাভ করে ছাত্রলীগ। এদিকে কারচুপির অভিযোগ তুলে বিভিন্ন প্যানেলের পক্ষ থেকে ভোট বাতিল করে পুনঃতফসিলের দাবি উঠেছে। ভিপি নুরুল হক নূরও ৩১ মার্চের মধ্যে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*