মির্জা ফখরুলসহ ৮ নেতার জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন নিষ্পত্তি

নাশকতার অভিযোগে করা মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জ্যেষ্ঠ আট নেতার জামিন স্থগিত চেয়ে করা রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের নিষ্পত্তি করেছেন আপিল বিভাগ। তবে নেতাদের আগাম জামিন বহাল থাকা না থাকার সিদ্ধান্ত পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর জানা যাবে।

সরকারবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য, পুলিশের কাজে বাধা ও নাশকতার মামলায় পুলিশ রিপোর্ট দেয়া পর্যন্ত হাইকোর্ট আগাম জামিন দিতে পারে কিনা রাষ্ট্রপক্ষ এমন আবেদন করেন। আজ বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপক্ষের এ আবেদনের পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করে দেন আপিল বিভাগ।

একই সঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন ও সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর আগাম জামিন স্থগিত চেয়ে করা আবেদনও পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

এর আগে নাশকতার অভিযোগে হাতিরঝিলে করা মামলায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৮ শীর্ষ নেতাকে আগাম জামিন দেন বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি কাশেফা হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

গত বছরের ১ অক্টোবর রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় সরকারবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৫৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করে পুলিশ। মামলায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও আইন সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়াকেও আসামি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে হাইকোর্ট থেকে মওদুদ ও সানাউল্লাহ জামিন নিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার সংগ্রামী জীবন নিয়ে বই লিখেছেন এমাজউদ্দীন

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সংগ্রামী জীবন ও কর্ম নিয়ে বই লিখেছেন বিএনপি ঘরানার ‍বুদ্ধিজীবী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাবেক সভাপতি আবদুল হাই শিকদার।

‘খালেদা জিয়া-তৃতীয় বিশ্বের কণ্ঠস্বর’ শিরোনামে বইটি শিগগিরই বাজারে আসছে। বইটির প্রকাশনা অনুষ্ঠান হবে আগামীকাল শুক্রবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে।

গত শতকের আশির দশকের শুরুতে স্বামী সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান হত্যাকাণ্ডের পরই গৃহবধূ থেকে রাজনীতিতে আসেন খালেদা জিয়া। নেতাকর্মীদের চাপে দলের হাল ধরেন সেই সময়। সেনাশাসক জিয়াউর রহমান দল গঠন করলেও বিএনপির জনভিত্তি তৈরি হয় খালেদা জিয়ার হাত ধরেই।

খালেদা জিয়া রাজনীতির শত ঘাতপ্রতিঘাত ও চড়াই-উতরাই পেরিয়ে নিজেকে আপসহীন নেত্রীতে পরিণত করেন। রাজপথে দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রাম করে ১৯৯১ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে বাংলাদেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হন তিনি। এর পর শতপ্রতিকূলতার পরও জাতীয়তাবাদী চেতনার রাজনীতির আইকন হয়ে ওঠেন তিনি। সেই সঙ্গে দেশের অন্যতম বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপির নিউক্লিয়াসে পরিণত হন। এ পর্যন্ত আসতে তাকে বহু আন্দোলন-সংগ্রাম করতে হয়েছে। বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় জেল খাটাসহ তার অসামান্য অবদান উঠে এসেছে খালেদা জিয়া-তৃতীয় বিশ্বের কণ্ঠস্বর বইটিতে।

কখনও নির্বাচনে পরাজিত না হওয়া এই সংগ্রামী নেত্রী গত এক বছরের বেশি সময় ধরে কারাবন্দি। বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে তিনি রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বিষয়টিও বইয়ে উঠে এসেছে।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে লেখা বইটির দাম ধরা হয়েছে দুই হাজার টাকা। তবে অনুষ্ঠানস্থলে এই বই পাওয়া যাবে মাত্র এক হাজার টাকায়।

এর আগে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক জীবন ও নানা ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে ‘বেগম খালেদা জিয়া : হার লাইফ, হার স্টোরি’ শীর্ষক বই লিখেছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ। ৭১৮ পৃষ্ঠার ওই বইতে গৃহবধূ থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রাম, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মেয়াদে কারাবাস, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্ত্রীর জীবনের এসব ঘটনার অনেক অজানা কথা তুলে ধরেন লেখক, যা জাতীয়তাবাদী চেতনার লোকজনের চিন্তার খোরাক জুগিয়েছে।

মির্জা ফখরুলসহ ৮ নেতার জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন নিষ্পত্তি

নাশকতার অভিযোগে করা মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জ্যেষ্ঠ আট নেতার জামিন স্থগিত চেয়ে করা রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের নিষ্পত্তি করেছেন আপিল বিভাগ। তবে নেতাদের আগাম জামিন বহাল থাকা না থাকার সিদ্ধান্ত পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর জানা যাবে।

সরকারবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য, পুলিশের কাজে বাধা ও নাশকতার মামলায় পুলিশ রিপোর্ট দেয়া পর্যন্ত হাইকোর্ট আগাম জামিন দিতে পারে কিনা রাষ্ট্রপক্ষ এমন আবেদন করেন। আজ বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপক্ষের এ আবেদনের পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করে দেন আপিল বিভাগ।

একই সঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন ও সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর আগাম জামিন স্থগিত চেয়ে করা আবেদনও পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

এর আগে নাশকতার অভিযোগে হাতিরঝিলে করা মামলায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৮ শীর্ষ নেতাকে আগাম জামিন দেন বিচারপতি মুহাম্মদ আবদুল হাফিজ ও বিচারপতি কাশেফা হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

গত বছরের ১ অক্টোবর রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় সরকারবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য এবং পুলিশের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৫৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করে পুলিশ। মামলায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও আইন সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়াকেও আসামি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে হাইকোর্ট থেকে মওদুদ ও সানাউল্লাহ জামিন নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*