মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১১৫ অভিযোগ

ভারতের ইসলামী চিন্তাবিদ ও বক্তা জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ায় ১১৫টি অভিযোগ আনা হয়েছে। ফলে ভারত থেকে নির্বাসিত নায়েককে মালয়েশিয়া ছাড়তে হতে পারে।
সাম্প্রতিক সময়ে মালয়েশিয়ায় তার স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়া নিয়ে দেশটির মন্ত্রিসভার বৈঠকে চার মন্ত্রী তাকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন। শুধু তাই নয়, তার বিরুদ্ধে শান্তি বিনষ্টের অভিযোগ আনা হয়েছে। মালয়েশিয়ার পুলিশ বলছে, তারা এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে। খবর স্ট্রেইট টাইমসের।

ফেডারেল সিআইডির পরিচালক হুজির মোহাম্মদ সেলানগর পুলিশের হেড কোয়ার্টার থেকে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আমরা তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করেছি। ইতিমধ্যে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১১৫টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মালয়েশিয়ায় বসবাসরত চীনা বংশোদ্ভূত নাগরিকদের আগে দেশে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন জাকির নায়েক। তাদের মালয়েশিয়ার পুরনো অতিথি বলে উল্লেখ করেন তিনি। কেলানতানে এক ধর্মীয় আলোচনায় তাকে নিজের দেশে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানানো হলে এর জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন। একই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিমদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ১০০ গুণ বেশি অধিকার ভোগ করছে। প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ার ৬০ শতাংশ মুসলিম বাদে বাকি ৪০ শতাংশ মানুষের অধিকাংশই চীনা ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত। নায়েকের এমন মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

তাকে দেশ থেকে বিতাড়িত করার দাবি তুলে মালয়েশিয়ার চার মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ার মুসলিমদের সঙ্গে অমুসলিমদের দূরত্ব তৈরির উদ্দেশ্যে এমন মন্তব্য করেছেন জাকির নায়েক। মালয়েশিয়ার যোগাযোগ ও মাল্টিমিডিয়া বিষয়ক মন্ত্রী গোবিন্দ সিং দেও এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা আমাদের অবস্থান জানিয়েছি। যেন জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়ে তাকে আর মালয়েশিয়ায় থাকার অনুমতি না দেয়া হয়। এই ধর্ম প্রচারকের সিঙ্গাপুরে প্রবেশের ওপর আগেই নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*