আওয়া’মী লীগ ক্রমে’ই জন’বিচ্ছিন্ন হয়েছে

জনমানুষের দল আওয়ামী লীগ ক্রমে জনবিচ্ছিন্ন হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল।

আওয়ামী লীগ নাগরিকদের নাগরিকবোধ তৈরিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেছেন, ‘আমরা এখন প্রজায় পরিণত হয়েছি।’

রাজধানীর প্রেসক্লাবে তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে আজ শুক্রবার বেলা একটার দিকে এক আলোচনাসভায় সুলতানা কামাল এসব কথা বলেন।

যাত্রী অধিকার দিবসের ঘোষণা উপলক্ষে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

পরিবহন খাত সামগ্রিক সুশাসনের বিষয় মন্তব্য করে সভায় সুলতানা কামাল বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক শৃঙ্খলা, সুশাসন ফিরিয়ে আনতে না পারলে এভাবেই চলবে।

অনেক সমস্যার মধ্যে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সমস্যা। প্রতিদিন রাস্তায় মানুষ মারা যাচ্ছে। মহামারির চেয়েও বেশি মানুষ মরছে। এটা তো একটা দেশে হতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, ‘নাগরিকদের দায়িত্ব আছে। রাজনীতিবিদদেরও দায়িত্ব আছে। আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় আছে। আওয়ামী লীগ জনমানুষের দল।

অন্য যেকোনো দলের চেয়ে মানুষের সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততা বেশি। কিন্তু তারা নাগরিকদের নাগরিক বোধ দিতে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। ক্রমে তাদের বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। আমরা এখন প্রজায় পরিণত হয়েছি।’

সভায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সাংসদ মইন উদ্দীন খান বাদল বলেন, ৭০ শতাংশ সাংসদই কোটিপতি। তাঁরা তো গত ৩০ বছরেও বাসে চড়েননি। তাহলে সাধারণ মানুষের কষ্ট তাঁরা কী করে সংসদে বলবেন?

সাধারণ মানুষের চেয়ে ভিআইপিরাই সড়কে বেশি নিয়মশৃঙ্খলা ভাঙেন। যাঁরা আইন করেন, তাঁরাই তা পরের দিন ভঙ্গ করেন। ‘ফ্লাইওভার নির্মাণের সংস্কৃতি’ বন্ধ করা উচিত, এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘একের পর এক ফ্লাইওভার করা হচ্ছে।

এ ফ্লাইওভারগুলোতে কয়টা বাস ওঠে আর কয়টা প্রাইভেট কার ওঠে? উন্নয়ন করেন ভালো কথা কিন্তু এই উন্নয়ন কি ধনীদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য, নাকি সাধারণ মানুষের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য?’

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘সড়কে প্রতিদিন মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে। অথচ নিকটাত্মীয় কেউ মারা না গেলে এটা কোনো বিষয়ই না।

আমরা প্রতিদিন মৃত্যুর সংখ্যা পড়ছি। এটা নিছক একটা সংখ্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। উন্নয়নের কথা বলা হচ্ছে। অথচ জনগণ কী সেবা পেল, তা বলা হচ্ছে না।’

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরীকে ২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। ১৩ সেপ্টেম্বর তিনি জামিনে মুক্তি পান। দিনটি উপলক্ষে যাত্রী কল্যাণ সমিতি যাত্রী অধিকার দিবস পালনের ঘোষণা করেছে।

সভায় সংগঠনটির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘১৯ বছর আগে সংগঠনটির যাত্রা শুরু হয়েছে চট্টগ্রাম থেকে। যাত্রীদের বঞ্চনা, নিপীড়ন, হয়রানি, ভাড়ানৈরাজ্য গণমাধ্যমে তুলে ধরার মাধ্যমে সরকারে দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করেছি।

গণপরিবহনে যাত্রীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় আমরা উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখার চেষ্টা করেছি। এতে কখনো কখনো সরকার, কখনোবা কায়েমি স্বার্থবাদী গোষ্ঠীর চক্রান্তের শিকার আমাদের হতে হয়েছে।

তবু আমরা পিছপা হইনি। আমাকে যখন চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেপ্তার করা হলো, অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলা দেওয়া হলো, এ দেশের গণমাধ্যম, সুশীল সমাজ, নাগরিক সমাজ এবং সাধারণ সমাজ তখন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছিল।’

সভায় বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হোসেন আহমেদ মজুমদার, বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির সহসভাপতি তাওহীদুল হক প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*