আসামে রাখাইনের মতো আরেকটি গণহত্যার আশঙ্কা জমিয়তের

আসামের এনআরসি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেছেন, আসামে নাগরিকপঞ্জির নামে পূর্ব পুরুষ থেকে স্থায়ীভাবে ভারতে বসবাসকারী ১৯ লাখ মানুষকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে নাগরিকত্বের তালিকা থেকে বাদ দিয়ে নিজ দেশে পরবাসী করা এবং অভিবাসন ক্যাম্প তৈরি করে তাদের সেখানে আবদ্ধ রাখার উদ্যোগ নিশ্চিত করছে, এটি আদতে বিজেপির মুসলিম গণহত্যার প্রস্তুতি।
জমিয়ত মহাসচিবের প্রেস সেক্রেটারি মুনির আহমদ স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, গোটা ঘটনাপ্রবাহ ষড়যন্ত্রমূলক ও চরম অমানবিকই শুধু নয়, বরং বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের উপরও মারাত্মক হুমকি তৈরি করেছে। বাংলাদেশ সরকারের কর্তব্য, বিজেপির মুসলিম ও বাংলাদেশ বিরোধী এমন আগ্রাসী তৎপরতার বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ করা।

আল্লামা কাসেমী আরও বলেন, আন্তর্জাতিক আইন এবং মানবাধিকারের আন্তর্জাতিক নীতিমালা ভঙ্গ করে ভারতীয় নাগরিকদের ‘বাংলাদেশি’ আখ্যা দিয়ে পুশব্যাক করার প্রস্তুতি এবং স্বেচ্ছায় না গেলে গুলি করার হুমকির বিরুদ্ধে বাংলাদেশকে অবশ্যই অবিলম্বে জোর প্রতিবাদ জানাতে হবে। রোহিঙ্গাদের মতো আরেকটি গণহত্যার করুণ পরিণতি আমরা দেখতে চাই না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*